সংস্করণ: ২.০১

স্বত্ত্ব ২০১৪ - ২০১৭ কালার টকিঙ লিমিটেড

নিজের প্রথম বাসা | পর্ব ১: পরিকল্পনা

ঘরদোর সাজানো নিয়ে আমি খুব অভিজ্ঞতাপূর্ণ কোনো পরমার্শ আপনাদের দিতে পারবো না। খুব সম্প্রতি আমার ছোট একটা বাসা হয়েছে - তার গোছগাছ নিয়ে যে স্বল্প বিস্তর অভিজ্ঞতা হয়েছে তা জানানোই এই লেখার উদ্দেশ্য। যারা একদম জীবনের প্রথম নিজের বাসা গোছানো নিয়ে ভাবছেন শুধুমাত্র তাদের ক্ষেত্রেই আমার এই অভিজ্ঞতা কাজে লাগতে পারে। বাসায় ওঠার চাপ অবর্ণনীয়। টাকা পয়সা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার অবশ্যই। তবে পরিকল্পনা খুব ভালো না হলে অহেতুক অনেক খরচ হয়ে যেতে পারে এবং এক্ষেত্রে টাকার যোগান যত বেশি হোক না কেন এক পর্যায়ে হিমশিম খেতেই হয়। অল্প খরচেও আপনি ভালো থাকতে পারেন যদি সেরকম ইচ্ছা ও প্রচেষ্টা আপনার থাকে। বাসা গোছানোর পরিকল্পনার সময় আপনার সুহৃদ কারো সাথে সময় নিয়ে একটু পরামর্শ করুন। কাগজ কলম নিয়ে বসুন, লিস্ট তৈরী করুন, কাটছাট করুন... একবার না, বারবার, অসংখ্যবার। যত কাটাকাটি করবেন তত সুনির্দিষ্ট হবে আপনার পরিকল্পনা। একসাথে অনেক জিনিস কিনবেন না, অল্প অল্প করে কিনুন - তাতে উপযুক্ত জিনিসটা কেনার সম্ভাবনা বেশি থাকে। প্রথম দিনেই আপনার দরকার হবে নুন্যতম রান্নার সরঞ্জাম, পানি ফুটানো বা বিশুদ্ধকরণের কোনো মাধ্যম, জগ-গ্লাস (এখন যদিও আমরা বোতলে পানি খেতে বেশি অভ্যস্ত), ঘুমানোর ব্যবস্থা, বাসা পরিস্কারের সরঞ্জাম। প্রথম ১/২ দিন বাসায় কাটানোর পরপর-ই আপনি/আপনারা হাড়েহাড়ে টের পেয়ে যাবেন কোন কোন জিনিস বেশি প্রয়োজন।
এখানে প্রকাশিত প্রতিটি লেখার স্বত্ত্ব ও দায় লেখক কর্তৃক সংরক্ষিত। আমাদের সম্পাদনা পরিষদ প্রতিনিয়ত চেষ্টা করে এখানে যেন নির্ভুল, মৌলিক এবং গ্রহণযোগ্য বিষয়াদি প্রকাশিত হয়। তারপরও সার্বিক চর্চার উন্নয়নে আপনাদের সহযোগীতা একান্ত কাম্য। যদি কোনো নকল লেখা দেখে থাকেন অথবা কোনো বিষয় আপনার কাছে অগ্রহণযোগ্য মনে হয়ে থাকে, অনুগ্রহ করে আমাদের কাছে বিস্তারিত লিখুন।

healthy-living, partner, peace, experience, life, planning, decoration, new-home