সংস্করণ: ২.০১

স্বত্ত্ব ২০১৪ - ২০১৭ কালার টকিঙ লিমিটেড

fotua-shadakalo.jpg

গ্রীষ্মের তাপদাহ গরমে আরাম ফতুয়ায়

এখন গরমের সময়।  বাইরে বের হলেই প্রচণ্ড তাপদাহ। অল্প একটু সময় বাইরে থাকলেই ঘেমে-নেয়ে একাকার অবস্থা। পোশাক ভিজে বিশ্রী পরিস্থিতির সৃষ্টি হচ্ছে যখন তখন। এমন দিনে তাই মোটা কাপড় পরার প্রশ্নই আসে না। এমনকি পাতলা টি-শার্টেও কষ্ট হয় তীব্র গরমে। গরমের এমন তীব্রতায় স্বাচ্ছন্দ্যে পরার জন্য বেছে নিতে পারেন ফতুয়া। 

গরমে আরামের কথা মাথায় রেখে ইতিমধ্যেই দেশীয় ফ্যাশন হাউসগুলো নানা রকম ফতুয়া এনেছে বাজারে। রঙ-বর্ণ ও ডিজাইন বৈচিত্র্যে পরিপূর্ণ একটি ফতুয়া কিনে ফেলতে পারেন এখনই। তীব্র গরমের দিনগুলো কাটাতে পারেন দারুণ আরামে। তবে বেশকিছু ফ্যাশন হাউস ফতুয়া এবং পাঞ্জাবির সংমিশ্রণে বাজারে এনেছে ফতুঞ্জি। আপনার  জন্য বেছে নিতে পারেন এটিও।

ধরন ও বৈচিত্র্য: বসন্ত এখন শেষ হয়েছে এই তো সেদিন। চলছে গ্রীষ্মকাল। বাজারে আনা নতুন ফতুয়ার ধরনে এ দুটি বিষয় গুরুত্ব পেয়েছে সবার আগে। এ ছাড়া রঙের ক্ষেত্রেও বসন্তের সঙ্গে মিলে যায়, এমন রঙকে প্রাধান্য দেয়া হয়েছে। একই সঙ্গে প্রাধান্য পেয়েছে বেশাখী লাল-সাদাও। দেশীয় ফ্যাশন হাউস অঞ্জন’স এবার অন্য যে কোনো সময়ের চেয়ে বেশি ডিজাইনের ফতুয়া আনছে। তরুণ-তরুণী, শিশু; সবার জন্যই থাকছে অঞ্জন’স-এর বড় আয়োজন। ডিজাইনের ক্ষেত্রে অঞ্জন প্রিন্ট ও অ্যাম্ব্রয়ডারির ব্যবহার করেছে। আর কাপড়ের ক্ষেত্রে বেছে নেওয়া হয়েছে সুতি। এছাড়া রঙে বাছাইয়ের ক্ষেত্রে প্রাধান্য পেয়েছে বাসন্তী রঙ। 

দেশী ফ্যাশন হাউস তারা মার্কা এ সময়ের ফতুয়ার জন্য কাপড় হিসেবে পাতলা সুতি কাপড়ে বেছে  নিয়েছে। এতে গরমের যন্ত্রণা থেকে যেমন রেহাই পাওয়া যাবে, তেমনি পাওয়া যাবে দারুণ আরামও। আর রঙের ক্ষেত্রে স্বাভাবিকভাবেই গুরুত্ব পেয়েছে বসন্ত ও বৈশাখের উজ্জ্বল রঙ।  তারা মার্কা এবার বেশ কিছু ডিজাইনের ফতুয়া এনেছে বাজারে। আমূল কোনো পরিবর্তন না হলেও রঙের ব্যবহারে যে বৈচিত্র্য আনা হয়েছে, তা শৌখিনদের চাহিদা মেটাবে।

ফ্যাশন হাউস রঙ এবার নতুন একটি ধারণার ওপর ফতুয়া এনেছে। বাংলাদেশি সংস্কৃতির অন্যতম অনুষঙ্গ লুঙ্গি ব্যবহার করা হয়েছে। রঙ-এর আনা ফতুয়ায় পাওয়া যাবে লুঙ্গির ডিজাইন। ফতুয়ার পাশাপাশি থ্রি-পিস, পাঞ্জাবি এবং শাড়িতেও লুঙ্গির আবহ ফুটিয়ে তোলার চেষ্টা করেছে রঙ। রঙের এই নতুন ধারণার পোশাক পাওয়া যাচ্ছে পহেলা বৈশাখ থেকে। এ ছাড়া বসন্তের এ সময়েও ফতুয়া রয়েছে রঙ-এর সংগ্রহে। সুতি কাপড় ও উজ্জ্বল রঙের প্রাধান্য রয়েছে রঙ-এর ফতুয়ায়।

ফতুয়ার পাশাপাশি তরুণদের কাছে পাঞ্জাবির রয়েছে বিশেষ চাহিদা। প্রতি বছর গরমের মৌসুমে ডিজাইনাররা ফতুয়ার নতুন নতুন ডিজাইন নিয়ে গবেষণা করেন। চেষ্টা করেন নতুনত্ব আনতে। এই নতুনত্ব আনার চেষ্টার মধ্যেই ফতুয়া ও পাঞ্জাবির বিশেষ ধরন এক করে তৈরি হয়েছে ফতুঞ্জি। গত দুই তিন মৌসুম ধরে ভালো জনপ্রিয়তা পেয়েছে এই পোশাকটি। থাকছে এবারও।

সবার জন্য: তরুণ-তরুণী ও শিশু, সবার জন্যই ফতুয়া আনছে দেশীয় ফ্যাশন হাউসগুলো। ফতুয়ার আরাম থেকে বঞ্চিত হবেন না মুরব্বিরাও। তরুণদের জন্য সব সময়ের মতো জনপ্রিয় ডিজাইনগুলোই থাকছে। তরুণীদের ফতুয়ার ক্ষেত্রে শর্ট ও কিছুটা লং কাটের ফতুয়া আনছে অঞ্জন’স। অন্য ফ্যাশন হাউসজগুলোও এ বিষয়ে বিশেষ গুরুত্ব দিয়েছে। বয়স্কদের ফতুয়ার ক্ষেত্রে রঙচঙে কিছুটা গম্ভীরতা আনা হয়েছে। যাতে বয়সের সঙ্গে যথাযথভাবে খাপ খাইয়ে যেতে পারে। এ ক্ষেত্রে প্রিন্ট ও অ্যাম্ব্রয়ডারিতেও দেয়া হয়েছে বাড়তি মনোযোগ। রঙের ব্যবহার সবচেয়ে বেশি ও দৃষ্টিনন্দনভাবে তুলে ধরা হয়েছে শিশু ও তরুণীদের ফতুয়ায়।

দরদাম: সুতি কাপড়ের প্রিন্ট বা অ্যাম্ব্রয়ডারি করা প্রতিটি ফতুয়ার দাম আপনার হাতের নাগালেই। অ্যাম্ব্রয়ডারির চেয়ে প্রিন্ট করা ফতুয়াগুলো কিনতে আপনাকে খরচ করতে হবে কিছুটা কম মূল্য। ছেলেদের প্রতিটি ফতুয়ার দাম পড়বে ৫৫০ টাকা থেকে ১২০০ টাকা পর্যন্ত। মেয়েদের ক্ষেত্রে দাম কিছুটা বাড়বে। খরচ করতে হবে ৬০০ টাকা থেকে ১৫০০ টাকা পর্যন্ত। অ্যাম্ব্রয়ডারি করা ফতুয়াগুলো কিনতে আরও একটু বেশি খরচ করতে হবে। ছেলেদের অ্যাম্ব্রয়ডারি করা ফতুয়ার দাম পড়বে ৭০০ টাকা থেকে ১৫০০ টাকা। মেয়েদেরগুলো কিনতে খরচ করতে হবে ৭৫০ টাকা থেকে ১৬০০ টাকা পর্যন্ত। এ ছাড়া কেনার সময় দরদাম করলে কিছুটা কম দামে পাওয়া যেতে পারে।

কোথায় পাবেন: ফতুয়া কেনার জন্য আপনার সেরা বাজার হতে পারে আজিজ সুপার মার্কেট। এ ছাড়াও পাবেন বসুন্ধরা সিটি, যমুনা ফিউচার পার্ক, নিউমার্কেটসহ প্রায় সবগুলো বিপনীবিতানে। এ ছাড়া যে কোনো দেশীয় ফ্যাশন হাউসের যে কোনো শাখায় যেতে পারেন ফতুয়া কিনতে।


এখানে প্রকাশিত প্রতিটি লেখার স্বত্ত্ব ও দায় লেখক কর্তৃক সংরক্ষিত। আমাদের সম্পাদনা পরিষদ প্রতিনিয়ত চেষ্টা করে এখানে যেন নির্ভুল, মৌলিক এবং গ্রহণযোগ্য বিষয়াদি প্রকাশিত হয়। তারপরও সার্বিক চর্চার উন্নয়নে আপনাদের সহযোগীতা একান্ত কাম্য। যদি কোনো নকল লেখা দেখে থাকেন অথবা কোনো বিষয় আপনার কাছে অগ্রহণযোগ্য মনে হয়ে থাকে, অনুগ্রহ করে আমাদের কাছে বিস্তারিত লিখুন।

summer, fashion, Fotua, Cloths, trend, Dhaka, life