সংস্করণ: ২.০১

স্বত্ত্ব ২০১৪ - ২০১৭ কালার টকিঙ লিমিটেড

nature-connection.jpg

প্রকৃতির সাথে সংযোগ ভূমিকম্পের কারণে যে রোগগুলো হতে পারে!

প্রকৃতপক্ষে ভূমিকম্পের সময় ইলেক্ট্রোম্যাগনেটিক শক্তি নির্গত হয়। আমাদের শরীর যদি এই শক্তি মোকাবেলা করতে না পারে তবে তা মাইগ্রেনে রূপ নিতে পারে।

আমরা সবাই ভূমিকম্পের সাথে পরিচিত। ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত নেপালে বারবার আঘাত হানছে ভূমিকম্প। যার কম্পনে আমাদের দেশ, ভারত, চীনও কেঁপে উঠছে। যার স্মৃতি এখনো আমরা ভুলিনি। আমাদের ধারণা ভূমিকম্পের ফলে শুধু বড় বড় ভবন, গাছপালা ভেঙ্গে পড়েই মানুষের জীবনের ক্ষতি হতে পারে। কিন্তু আপনি জানেন কি ভূমিকম্পের কারণে ভবনধ্বস ছাড়াও মানুষের মৃত্যু হতে পারে! কিন্তু কিভাবে? হ্যাঁ এখন সেটাই বলছি।

মাইগ্রেনের সমস্যা:
ভূমিকম্পের পর প্রায়ই মাইগ্রেনের সমস্যার কথা শোন যায়। ভ’মিকম্পের কারণে কিছু লোকের মাইগ্রেনজনিত ব্যথা সাময়িক দূর হতে পারে। অপরদিকে কিছু লোক খুবই ভীত-বিহ্বল হয়ে পড়ে ও মাইগ্রেনের ব্যথা শুরু হয়। প্রকৃতপক্ষে ভূমিকম্পের সময় ইলেক্ট্রোম্যাগনেটিক শক্তি নির্গত হয়। আমাদের শরীর যদি এই শক্তি মোকাবেলা করতে না পারে তবে তা মাইগ্রেনে রূপ নিতে পারে।

ভূমিকম্পের প্রতি ভয় জন্মানো:
ভূমিকম্পের পরপরই অনেকেই তাদের বন্ধু-বান্ধব, আত্মীয়-স্বজনকে ফোন করতে দেখা যায়। এতে ঐসকল লোকদের অনেকের মাঝে ভূমিকম্পের প্রতি ভয় পরিষ্কারভাবে বোঝা যায়। এরা ভূমিকম্পের ভয়ে এতটা সন্ত্রস্ত হয় যে তারা ভাবে এই বুঝি ভূমিকম্প এল! এ ধরনের রোগকে ফোবিয়া বা ভয় জনিত রোগ বলে। ভূমিকম্পের প্রতি ভয়ে হলে তাকে ভূমিকম্প ফোবিয়া বলা হবে। এই ভয়ের কারণেও কিছু লোক মারা যেতে পারে।

হার্ট অ্যাটাক:
অনেক সময় দেখা যায় দূর্বলচিত্তের লোকেরা ভূমিকম্পের ভয়ে হার্ট অ্যাটাকের শিকার হয়। নেপালের প্রথম দফা ভূমিকম্পনের কারণে আমাদের দেশে হার্ট অ্যাটাকে মারা যাওয়ার সংবাদ পাওয়া যায়। এধরনের লোকদের ভূমিকম্পের বিপর্যয় সম্পর্কে বোঝাতে হবে। তাদের মাঝে সাহস বাড়াতে হবে।

বিপদে সাহস ও মাথা ঠান্ডা রাখতে হয়। ভীত-বিহ্বল হয়ে ছোটাছুটি ও চিৎকার না করে ভূমিকম্পের সময় করণীয় কাজগুলো কি তা করতে হবে। দেখুন এমনিতেই ভূমিকম্পের কারণে আমাদের জানমালের ব্যাপক ক্ষতি হতে পারে। তার উপর আবার শুধু ভয়ের কারণেই আতঙ্কিত হয়েও মানুষ মারা যাবে এটা কোনভাবেই কাম্য হতে পারে না। তাই ভূমিকম্প মোকাবেলায় ভয়কেই সরিয়ে রাখতে পারাটাই হবে বুদ্ধিমানের কাজ।

এখানে প্রকাশিত প্রতিটি লেখার স্বত্ত্ব ও দায় লেখক কর্তৃক সংরক্ষিত। আমাদের সম্পাদনা পরিষদ প্রতিনিয়ত চেষ্টা করে এখানে যেন নির্ভুল, মৌলিক এবং গ্রহণযোগ্য বিষয়াদি প্রকাশিত হয়। তারপরও সার্বিক চর্চার উন্নয়নে আপনাদের সহযোগীতা একান্ত কাম্য। যদি কোনো নকল লেখা দেখে থাকেন অথবা কোনো বিষয় আপনার কাছে অগ্রহণযোগ্য মনে হয়ে থাকে, অনুগ্রহ করে আমাদের কাছে বিস্তারিত লিখুন।

Migraine, heart, connection, nature, life, Disorder, earthquake