সংস্করণ: ২.০১

স্বত্ত্ব ২০১৪ - ২০১৭ কালার টকিঙ লিমিটেড

Mainicure-at-Home.jpg

হাতের যত্ন জেনে নিন ঘরে বসে মেনিকিউর করার সহজ উপায়

পার্লারে গিয়ে অনেক সচেতন নারীই মেনিকিউর করিয়ে থাকেন। তবে চাইলে ঘরে বসে স্বল্প খরচেই কাজটি করে ফেলতে পারেন আপনি।

পায়ের যত্ন নেয়ার উপায় সম্পর্কে আপনারা আগেই জেনেছেন। নিশ্চয়ই শিখেও নিয়েছেন ঘরে বসে পায়ের যত্ন বা পেডিকিউর করার উপায়গুলো। আজ তবে জেনে নিন হাতের নখের যত্ন বা মেনিকিউর সম্পর্কে।

মূলত হাতের নখ ও আঙুলের যত্ন নেওয়ার যে প্রক্রিয়া তাকে মেনিকিউর বলা হয়। পার্লারে গিয়ে অনেক সচেতন নারীই মেনিকিউর করিয়ে থাকেন। তবে চাইলে ঘরে বসে স্বল্প খরচেই কাজটি করে ফেলতে পারেন আপনি।

কেন করবেন মেনিকিউর?
যেকোন বয়সী নারীর জন্যই মেনিকিউর করা প্রয়োজন। তরুণী থেকে শুরু করে গৃহিণী, সবারই উচিৎ হাতের যত্ন নেওয়া। অতি সাধারন ব্যাপার হলেও এ কথা সত্য যে অনেক সময় অন্যের কাছে আপনার ব্যাক্তিত্ব কিংবা রুচিশীলতার মাধ্যম হয়ে দাঁড়ায় আপনার হাতের নখের সৌন্দর্য!

ভাবছেন, কিভাবে? ধরুন, আপনি চাকুরীর জন্য গিয়েছেন। ভাইবা বোর্ডে ফাইল এগিয়ে দেওয়ার সময় দেখা গেল আপনার হাতের নখ হলদেটে হয়ে আছে কিংবা নখে জমে আছে ময়লা। এটি কি খুব বেশি শোভনীয়? মোটেও নয়। তাহলে চলুন ধাপে ধাপে শিখে নেওয়া যাক মেনিকিউর করার উপায়গুলো।

ধাপ ১ - মেনিকিউর করার জন্য আপনার কয়েকটি জিনিস লাগবে। এই ধরুন তুলোর বল বা তুলা, নেইল কাটার, নখ শেইপ করার যন্ত্র ইত্যাদি। সেগুলো একত্রীকরণ করুন।

ধাপ ২ - আপনার নখে নেইলপলিশ দেয়া থাকলে সেগুলোকে ভালো করে তুলে ফেলুন। এক্ষেত্রে অবশ্যই ভালোমানের নেইলপলিশ রিমুভার ব্যবহার করবেন। আর যদি নেইলপলিশ না থাকে। তবুও একটু তুলাতে পানি নিয়ে নখগুলো মুছে ফেলুন।

ধাপ ৩ - নেইল কাটার দিয়ে নখগুলো কেটে ফেলুন। নখ একদম বেশি ছোট করে ফেলবেন না। এটি দেখতে বেমানান লাগে। আঙুলের অগ্রভাগে একটি হালকা রেখা দেখা যায়। খেয়াল করে, অন্তত সেই রেখা পর্যন্ত রেখে নখ কাটুন।

নখের দুই কোনায় গোলাকার আকৃতিতে না কেটে ডিম্বাকার বা চতুষ্কোণ আকৃতিতে কাটুন। গোলাকার করে কাটলে তা পরবর্তিতে বাড়তে অসুবিধা হয়।  তবে হ্যা খেয়াল করে, নখের কোনায় জমে থাকা ময়লা পরিষ্কার করে নিন।

ধাপ ৪ - নেইল কাটারের বিশেষ অংশ দিয়ে নখের ধারালো অংশ ঘষে নিন। বাজারে নেইল বাফার নামক নখ কোমলকারক যন্ত্র পাওয়া যায়। চাইলে সেটিও ব্যবহার করতে পারেন।

ধাপ ৫ - একটি পাত্রে বা বৌলে হালকা উষ্ণ পানি নিন। তাতে কয়েক ফোটা শ্যাম্পু বা সাবান মেশান। এবার হাতদুটি কয়েক মিনিটের জন্য ভিজিয়ে রাখুন। এতে আপনার হাতের জীবানু ধ্বংস হবে, নখ কোমল হবে এবং ডেড সেলগুলো দূর হবে।

আপনার ত্বক যদি রুক্ষ হয় তবে হাত ভেজানোর দরকার নেই।

ধাপ ৬ - এবার নখের ত্বক নেইল কাটারের নখের ত্বক পরিষ্কার করার অংশ দিয়ে হালকা করে ঘষে নিন। এতে করে নখের হলদেটেভাব দূর হবে।

ধাপ ৭ - হাত শুকালে হাতে ভালো মানের লোশন ম্যাসেজ করে নিন।

ধাপ ৮ - আপনি যদি নেইলপলিশ পরতে পছন্দ করে থাকেন তবে এখন আপনার হাতের নখগুলো পছন্দের রঙে আর পছন্দের ডিজাইনে সাজিয়ে ফেলুন।

দেখলেন তো, কত সহজেই হাতের নখের যত্ন নেওয়া যায়। এবার থেকে তবে সময় করে ঘরে বসেই করে নিতে পারেন মেনিকিউর। 


এখানে প্রকাশিত প্রতিটি লেখার স্বত্ত্ব ও দায় লেখক কর্তৃক সংরক্ষিত। আমাদের সম্পাদনা পরিষদ প্রতিনিয়ত চেষ্টা করে এখানে যেন নির্ভুল, মৌলিক এবং গ্রহণযোগ্য বিষয়াদি প্রকাশিত হয়। তারপরও সার্বিক চর্চার উন্নয়নে আপনাদের সহযোগীতা একান্ত কাম্য। যদি কোনো নকল লেখা দেখে থাকেন অথবা কোনো বিষয় আপনার কাছে অগ্রহণযোগ্য মনে হয়ে থাকে, অনুগ্রহ করে আমাদের কাছে বিস্তারিত লিখুন।

রিমুভার, নেইলপলিশ, নেইল-কাটার, তুলা, সৌন্দর্য, আঙুল, নখ, পার্লার, হাতের-যত্ন, মেনিকিউর